০৮:৫৭ এএম | টাঙ্গাইল, রোববার, ২৩ জুন ২০২৪
প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আব্দুল ওয়াহেদ মিয়া

নির্বাচনে হেরে ভোট কারচুপির অভিযোগ করলেন বহিস্কৃত বিএনপি নেতা

স্টাফ রিপোর্টার | টাঙ্গাইল২৪.কম | বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪ | |
, টাঙ্গাইল :

৬ষ্ঠ উপজেলা নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপে গত ২১ মে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ব্যাপক ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হয়ে ভোট কারচুপি ও নানা অনিয়মের অভিযোগ করলেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার বাবলু। 

একইসঙ্গে নির্বাচন ও ফলাফল প্রত্যাখানসহ ভোট নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার বাবলু ঘোড়া প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন। তিনি উপজেলা বিএনপির সদ্য বহিস্কৃত সহ-সভাপতি। বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে ভূঞাপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয় চত্বরে এমন অভিযোগ করেন তিনি।

ক্ষোভ প্রকাশ করে বাবলু বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্বাসে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলাম। ভেবে ছিলাম এবার যেহেতু দলীয় প্রতীক থাকছে না তাহলে নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে। কিন্তু ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা হস্তক্ষেপ করে অনিয়ম ও কারচুপি করে এমপি সমর্থিত প্রার্থীকে জয়ী করেছেন। 

আমি মনে করি, এই উপজেলা নির্বাচনে ৫ থেকে ৭ শতাংশ মানুষ ভোট দেয়নি। এভাবে নির্বাচন হলে আগামীতে কোনো নির্বাচনেই জনগণ কেন্দ্রে ভোট দিতে যাবেন না।

নির্বাচন প্রত্যাখান করে তিনি বলেন, সকাল ৮ টা থেকে সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ চললেও দুপুরের পর থেকে ক্ষমতাসীন দলের লোকজন ছোট-ছোট বাচ্চাদের দিয়ে একাধিবার ভোট প্রদান করিয়েছেন। এছাড়া আমার এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়েছে ও ভোটারদের কেন্দ্রে না যেতে হুমকি প্রদান করেছে। এটাকে নির্বাচন বলা যায় না। 

মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার বাবলু আরও বলেন, উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের পরিষদের তিনবারের ইউপি চেয়ারম্যান ছিলাম। নির্বাচনের আগে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেয়ায় উপজেলা বিএনপি সহ-সভাপতি পদসহ প্রাথমিক সদস্যপদ থেকে আমাকে বহিষ্কার করা হয়। দলের সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান রেখে তিনি বলেন- আমি বিএনপির একজন আদর্শ ক্ষুদ্রকর্মী ও সমর্থক হয়ে আজীবন থাকতে চাই।

গত মঙ্গলবার ২১ মে দ্বিতীয় ধাপে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার বাবলু ঘোড়া প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নিয়ে তিনি ৩ হাজার ১০৫ ভোট পেয়ে জামানত হারান। তার প্রতিদ্বন্দ্বী দোয়াত কলম প্রতীক নিয়ে মোছা: নার্গিস বেগম ৩০ হাজার ৩৬৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। 

এছাড়া বিজয়ী প্রার্থী মোছা: নার্গিস বেগমের নিকটতম হেলিকপ্টার প্রতীক নিয়ে ৫ হাজার ৮৩৯ ভোট পান ফিরোজ চৌধুরী, আমিরুল ইসলাম তালুকদার বিদ্যুত পান ৪৫১ ভোট এবং তাহেরুল ইসলাম তোতা পান ১০৫ ভোট। যদিও প্রতীক বরাদ্দের পর বিদ্যুত ও তোতা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

মির্জাপুরে বাসের ধাক্কায় লেগুনা চালক নিহত মির্জাপুরে ঝিনাই নদীর ভাঙনের কবলে ধর্মীয় স্থাপনাসহ শতাধ বাসাইলে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু প্রাইভেটকার-মাহিন্দ্রার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৮ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আ.লীগের প্রস্তুতিমূলক সভা দেশের প্রতিটি নাগরিকের কথা চিন্তা করেন প্রধানমন্ত্রী : টাঙ্গাইলে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ গোপালপুরের প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার বিতরণ ভূঞাপুরে বাড়ছে কিশোর গ্যাংয়ের উৎপাত, প্রতিরোধে এলাকাবাস আগুনে পুড়ল দোকানপাট, পৌনে ১ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি ঘাটাইলে পিকআপ ভ্যান-মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে নিহত ২ "টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জন এবং নৈতিক শিক্ষার প্রসার বিষ এক বিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সেনাবাহিনী প্রস্তু মসজিদে মাইকিং করে হামলা, নিহত ১ নাগরপুরে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনা

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

নির্মান ও ডিজাইন : মঈনুল ইসলাম, পাওয়ার বাই: জিরোওয়ানবিডি